We use cookies to personalise content and ads, to provide social media features and to analyse our traffic. Read more…
Thursday
12
APR

★ সাজেকে নববর্ষ উদযাপন

22:00
21:00

Get Directions

Category
#var:page_name# cover

★নববর্ষ উদযাপনে
★ মেঘের_দেশ_সাজেক ও খাগড়াছড়ি ভ্রমন
================================
★ ভ্রমন : এপ্রিল (১২-১৩-১৪) ২০১৮

নতুন বছরকে বরণ করে নিতে সাজেকে হলিডে সিজন। প্রতি বছরই খাগড়াছড়িতে পাহাড়িরা এই দিবসটিকে আলাদাভাবে পালন করে ।সবাই পানি খেলায় মেতে উঠে ,১৪ তারিখ সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত খাগড়াছড়ির বিভিন্ন স্পট এ পাহাড়িরা এই উৎসব করে থাকে ।সাজেক সাথে পাহাড়িদের এই উৎসবে আপনিও আমন্ত্রিত।


★ যাত্রার তারিখঃ ১২ এপ্রিল , ২০১৮ রাত ১০.০০ টা কলাবাগান থেকে ।
★ফেরার তারিখঃ ১৪ এপ্রিল, ২০১৮ , রাত ০৯.০০ টা খাগড়াছড়ি থেকে ।

★★ বুকিং= ০১৮২৮-৭৭৫৯১১
★★(০৩ রাত ০২ দিন)
জনপ্রতি =৫,৩০০ টাকা (০১ রুম এ ০৪ জন )নন এসি বাস।
জনপ্রতি =৬,৩০০ টাকা (০১ রুম এ ০৪ জন ) এসি বাস।

*কাপল রুম এভেইলএবল। কাপল রুমের জন্য ৫০০ + ৫০০= ১০০০ টাকা প্রতি কাপলে যুক্ত হবে। যে কেউ ইচ্ছা করলে কাপল রুম নিতে পারবেন। তবে বুকিং'এর সময় কনফার্ম করতে হবে।

@ বাসে পছন্দমত সিট নিশ্চিত করতে হলে আগেই যোগাযোগ করুন।

#প্রথম_দিনঃ

খাগড়াছড়ি নেমে আমরা হোটেলে উঠবো তার পর ফ্রেশ হয়ে নাস্তা করবো খাগড়াছড়ির সনামধন্য ইজড় রেস্তোরায়। সামান্য বিশ্রাম নিবো। এরপর সকালের নাস্তা সেরে প্রথমেই চলে যাবো হাজাছড়া ঝর্ণা (আর্মিদের এসকর্ট এর উপর নির্ভর করবে), খাগড়াছড়ি থেকে সাজেকের দুরত্ব কমবেশী ৭৫ কি:মি: .সময় লাগে মোটামুটি ৩ ঘন্টা।রাস্তার দুই পাশে উচু নিচু পাহাড় আর সবুজের বুক চীড়ে এগিয়ে যেতে থাকবে গাড়ি।পথের দুই পাশ হতে পাহাড়ি শিশুর অভ্যর্থনা আপনার হৃদয় ছুয়ে যাবে। মনে হবে আপনি যেন এসছেন কোন এক স্বর্গ রাজ্যে, গাড়ি শুধু উপরের দিকে উঠতেই থাকবে উঠতেই থাকবে আপনি এক সময় পৌছে যাবেন মেঘের দেশ সাজেকে। আসলে একটু ভাল করে অনুভব করলে হয়তো আপনার ভ্রমনের পুরো আনন্দটা পেয়ে যেতে পারেন যাত্রা পথে।সাজেকে কটেজে উঠে ফ্রেশ হয়ে দুপুরের খাবার ,একটু বিশ্রাম নিয়ে সাজেকের উল্লেখযোগ্য পয়েন্ট ঘুরে চলে যাব সাজেকের সবচেয়ে উঁচু কংলাক পাড়া।কংলাক পাহাড় থেকে সূর্যাস্ত দর্সন।সন্ধ্যার পর সাজেকে পাহাড়ের উপর হ্যালিপ্যাডে বসে আড্ডা।

★স্পেশাল ফিচারঃ

রাতে বার বি কিউ। সাথে ফানুস উৎসব।

বৈসবি ও জলকেলি উৎসব উদযাপন

#দ্বিতীয়_দিনঃ

সকালে সাজেকে সূর্যোদয় দেখে এবং স্টোন গার্ডেন ঘুরে আপনি যখন দেখবেন বাংলাদেশের পূর্বের মিজুরামের সু- উচ্চ পাহাড়ের আড়াল থেকে লাল সূর্য উদিত হচ্ছে। আপনি তখন আনন্দে উদ্বেলীতে হবেন। সাজেকে রংধনু নিত্য নৈমেতিক ব্যাপার ভাগ্য ভাল হলে আপনি ও রংধনু সৌর্ন্দয্য উপভোগ করতে পারবেন। তারপর আমরা সকালের নাস্তা শেষ করে রওনা হবো খাগড়াছড়ির উদ্দেশ্য। খাগড়াছড়ি পৌছে হোটেলে ফ্রেশ হয়ে মধ্যন্য ভোজ শেষ করব খাগড়াছড়ির বিখ্যাত ইজড় রেস্টুরেন্ট এ। । খাবার শেষে বেড়িয়ে পরবো খাগছড়ির বিভিন্ন স্পর্ট দেখতে। আলুটিলা ঘুহা, রিসাং ঝর্ণা ,তারেং হেলিপেড ,জুলন্ত ব্রিজ ঘুরে সন্ধ্যায় হোটেলে ফ্রেশ হওয়া। তারপর রাতের খাবার খেয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হবো।ভোর ৫ টার মধ্যেই পৌঁছে যাবেন।

#যা যা থাকছে ভ্রমনের মধ্যে:

1। ঢাকা-খাগড়াছড়ি-ঢাকা নন এসি/এসি বাসের (ঈগল বাস/শান্তি)
আপডাউন টিকেট।
2।চান্দের গাড়ি ২ দিন রির্জাভের খরচ।
3। ১ রাত কটেজে থাকার খরচ ও ৬ বেলা খাবার ।
4। আলুটিলা প্রবেশ ফী.
5। সাজেক প্রবেশ ফী.
6। চান্দের গাড়ির ড্রাইভার হেলপার এর থাকা খাওয়ার খরচ.
7।অভিজ্ঞ গাইড
৮।ফ্রেশ হওয়ার রুম ভাড়া।
৯।বার বি কিউ। সাথে ফানুস উৎসব।

# ভ্রমণের স্থান সমুহঃ
* রক গার্ডেন, লুসাই হেরিটেজ পার্ক, হ্যালিপ্যাড,
*কংলাকপাড়া(কংলাক হচ্ছে সাজেকের সর্বোচ্চ চূড়া, মেঘ দেখার
জন্য সবচেয়ে আদর্শ জায়গা এটি).
ভ্রমণের সময় সাথে সবসময় রিজার্ভ মাহেন্দ্র জীপ।
* হাজাছড়া ঝর্ণা
* রিসাং ঝর্না (তেরাং তৈ কালাই)
* সাজেক
* রুই লুই পাড়া
* স্টোন গার্ডেন
* আলুটিলা গুহা
*জুলন্ত ব্রিজ
*তারেং হেলিপেড

#বুকিং এর নিয়মঃ

বুকিং চার্জ জন প্রতি ৩০০০ টাকা চার্জ প্রদান করে আপনার আপডাউন বাসের আসন বুঝে নিন।

# বুকিং এর টাকা জমা দিলে আপনার বাস এর সিট নাম্বার সহ কনফারমেশান এসএমএস পাঠিয়ে দিব।

১।সরাসরি অফিসে এসে বুকিং মানি জমা দেয়া যাবে।(15/G,Siddique Mention(2nd Floor),Jigatola,Dhanmondi, Dhaka .

২।বিকাশ করা যাবে ( ১.) ০১৮২৮-৭৭৫৯১১ personal

( ২.) ০১৮১৫-৮২৩২৪০ personal

# বিকাশে পাঠালে অবশ্যই খরচসহ পাঠাতে হবে ,এবং পাঠানোর পরে ফোন করে কনফার্ম করতে হবে।

৩।ইসলামি ব্যাংক :অ্যাকাউন্ট নাম্বার : ৮৩৫৪

★★বুকিং এর জন্য কল করুন : বুকিং= ০১৮২৮-৭৭৫৯১১

*** বাসের আসন বণ্টনের ক্ষেত্রে কোন অভিযোগ-অনুযোগ
গ্রহনযোগ্য নয় । সিট আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে দেওয়া হয়। তবে আসন বন্টনের ক্ষেত্রে বৃদ্ধ ও নারীদেরকে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়।***

কি কি নিতে হবে।

১। ব্যাগ, ২। গামছা, ৩। চাতা
৪। টুথপেস্ট/সাবান/শ্যাম্প ৫। কেডস্/স্যান্ডেল
৬। ক্যামেরা/ব্যাটারি/চার্জার ৭। পলিথিন, ৮। সানগ্লাস ৯। বডী লোশান্‌
১০। রবি সিম :সাজেক এ অন্য অপারেটরের নেটওয়ার্ক নেই.
১১।মোবাইল চার্জ দেওয়ার জন্য পাওয়ার ব্যাংক নিয়ে আসতে পারেন।

❐ কটেজ বিস্তারিত

============
কটেজ সমুহঃ

কটেজ ১। সাজেক বিলাস

কটেজ ২। মেঘ কাব্য

কটেজ ৩। নিসর্গ ।

কটেজ ৪।হিমাচল

★★খাবার মেন্যু-

সকালের নাস্তা -ডিম +সবজি +পরটা +চা , অথবা খিচুড়ি +ডিম ভুনা ।
দুপুরের অাহার - দেশি মুরগীর মাংস +সবজি +ডাল +ভর্তা +সাদা জুম চালের ভাত।

স্পেশাল ডিনার : সবজি +বেম্বু চিকেন/হাসের মাংস +ডাল +ভর্তা +সাদা ভাত/ বার বি কিউ

(পাহাড়িদের খাবারতো থাকছেই সাথে)।

সন্ধায় =চা+স্নাক্স

স্পেশাল ফিচারঃ @ রাতে বার বি কিউ। সাথে ফানুস উৎসব।

★★ শিশু পলিসি:
শিশু (৩-৬ বছর) ৩,০০০/= নন এসি বাস,
এসি বাস হলে ৪,০০০/=। (প্রাপ্ত বয়স্ক যা পায় সবই পাবে, থাকবে বাবা মায়ের সাথে)।
🍽 শিশু (১-৩ বছর) ফ্রি।
দ্রষ্টব্য :
বুকিং-এর টাকা অফেরত যোগ্য ( কোন সমস্যার কারনে ভ্রমনে যেতে না পারলে পরবর্তীতে যে কোন ভ্রমনে বুকিং আর টাকা সমন্বয় করা যাবে)।
তবে ৩ দিন আগে জানালে আমরা অবশ্যই রিফান্ড করবো।